মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

ব্যবসা বাণিজ্য

 

সুনামগঞ্জ জেলার অর্থনীতি কৃষি নির্ভর।

 

কৃষি পরিবার 

২,৪৫,৫৩০ টি

পেশা (কৃষি কাজের উপর নির্ভরশীল)

৮৩.৮৬ %

 
এছাড়া এ জেলায় একাধিক শিল্প কারখানা রয়েছে।
  
 

শিল্প কারখানা

৩ টি। ছাতক সিমেন্ট ফ্যাক্টরি লিঃ ,  টেকের ঘাট চুনাপাথর খনি প্রকল্প ও লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট কোম্পানি

ধান উৎপাদনে উদ্বৃত্ত এ জেলা বাংলাদেশের মৎস্য সম্পদেরও সবচেয়ে বড় আধার। উন্নত মানের বালু, চুনাপাথর, নুড়ি পাথর প্রভৃতি খনিজ সম্পদেও সমৃদ্ধ এ জেলা। মূলত ভৌগলিক অবস্থার কারনে সুনামগঞ্জ জেলার যোগাযোগসহ অন্যান্য ভৌত অবকাঠামোর তেমন উন্নয়ন হয়নি। পূর্বে জেলা সদরের সাথে মাত্র একটি উপজেলা সদরের সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা ছিল। বর্তমানে সদরের ২ টি সহ মোট ৬ টি উপজেলা সদরের সাথে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা স্থাপিত হয়েছে। এখনও ৫ টি উপজেলার সাথে সড়ক যোগাযোগ না থাকায় শুষ্ক মৌসুমে লোকজনকে পায়ে হেটে দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতে হয়। এতে যে কোন পরিকল্পনা কিংবা উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নেও দীর্ঘ সময় লেগে যায়।

 

অনুন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থার কারনে এ জেলায় উৎপাদিত কৃষি সামগ্রী বিপণনেও সমস্যা হয়। ফলে কৃষক তার উৎপাদিত পন্যের সঠিক মূল্য থেকে বঞ্চিত হয়।

 

মোহনগঞ্জ- ধর্মপাশা- জামালগঞ্জ- সুনামগঞ্জ সড়কটি নির্মিত হলে ঢাকার সাথে সুনামগঞ্জের দূরত্ব ১৪০ কি.মি. কমে যাবে। ফলে সুনামগঞ্জ থেকে সড়কপথে ঢাকায় প্রায় ৪/৫ ঘন্টায় যাওয়া সম্ভব হবে। তাছাড়া সুনামগঞ্জের সম্পদ মাছ, পাথর, বালি ও ধান দেশের উত্তর ও দক্ষিণাংশে পরিবহনে বিশেষ সুবিধা হবে।

ছবি